Text size A A A
Color C C C C
পাতা

অফিস সম্পর্কিত

সরকারি শিশু পরিবার (বালিকা), মাইজদী, নোয়াখালী এর পরিচিতিঃ-

সমাজসেবা অধিদফতর অন্যতম জাতি গঠনমূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে শিশুকল্যাণ ও উন্নয়নের বিভিন্ন কমসূচী গ্রহণ করেছে। শিশুদের কল্যাণ এবং উন্নয়নের ক্ষেত্রে প্রচলিত আইন, সাংবিধানিক অঙ্গীকার, জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক পযায়ে দেয় প্রতিশ্রুতিকে সমাজসেবা অধিদফতর অত্যন্ত সংবেদনশীল এবং গুরুত্বপূণ বিবেচনা করে শিশুকল্যাণ ও উন্নয়নের জন্য টেকসই কমসূচী বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ এর পবিত্র সংবিধানে রাষ্ট্র পরিচালনার মূলনীতির ১৫ এবং ১৭ নং অনুচ্ছেদের বিধান মতে রাষ্ট্রের সকল শিশুর মৌলিক অধিকার এবং অবৈতনিক শিক্ষা লাভের অধিকার সুস্পষ্টভাবে বিধৃত রয়েছে। সংবিধানের ১৫ (ঘ) অনুচ্ছেদে পিতৃ-মাতৃহীন এতিম শিশুদের জন্য রয়েছে সামাজিক নিরাপত্তা প্রদানের সুস্পষ্ট অঙ্গীকার। জাতিসংঘ ঘোষিত শিশু অধিকার সনদের প্রথম অনুস্বাক্ষরকারী দেশেরে মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম।

 

সরকারি শিশু পরিবার (বালিকা), মাইজদী, নোয়াখালী ১৯৭২ সালে প্রতিষ্ঠত হয়।

মোট জমির পরিমান- ৬.৫৯ একর।

 

 

লক্ষ্য উদ্দেশ্যঃ-

ক) এতিত নিসাবীদের পারিবারিক পরিবেশে স্নেহ-ভালোবাসা ও আদর-যত্মের সাথে লালন পালন, উপযুক্ত শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধা প্রদান করে তাদের শিক্ষিত, কমোপযোগী, উৎপদানশীল ও সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলা।

খ) নিবাসীদের শারীরিক, মানসিক ও মানবিক উৎকষ সাধনের বিষয়ে সহায়তা করা।

গ) নিবাসীদের আথ-সামাজিক পুনর্বাসন ও স্বানিভরতা অজনের লক্ষ্যে তাদের কমদক্ষ ও উপর্যক্ত করে কমসংস্থানের ব্যবস্থা করা।

ঘ) নিবাসীদেরকে শিশু অধিকার সনদ এবং তাদের স্বাথ সম্পর্কে সচেতনা করা।

 

কমসূচীর রূপরেখাঃ-

ক) নিবাসীদের স্বেহ-ভালোবাসা ও আদর-যত্মের সাথে লালন-পালন, ভরণপোষন ও রক্ষণাবেক্ষণ।

খ) নিবাসীদের স্বাস্থ্যরক্ষা ও চিকিৎসার ব্যবস্থা।

গ) ধর্মীয়, নৈতিক ও আচার-আচরণগত শিক্ষা প্রদান।

ঘ) সাধারন ও ব্যবহারিক শিক্ষা প্রদান।

ঙ) বৃত্তিমূলক ও কারিগরী প্রশিক্ষণ প্রদান।

চ) বিনোদনমূলক, সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া কমকান্ড পরিচালনা।

ছ)  মানসিক ও মানবিক উন্নয়নসহ সামাজিকীকরণ।

জ) আথ-সামাজিক পুনবাসন কাযক্রম পরিচালনা।

 

নিবাসীদের ভর্তির নিয়ন ও পদ্ধতিঃ-

শিশু পরিবারে ৬ বছর হতে ৯ বছর বয়সী দরিদ্র পরিবারের এতিম মেয়ে ভর্তির যোগ্য। এতিম মেয়ে বলতে তাদের বোঝায়, যারা পিতৃহীন বা মাতৃ-পিতৃহীন। শিশু পরিবারে ভর্তির জন্য বিজ্ঞপ্তি জারী করে শূণ্য আসনে ভর্তির ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

শিশু পরিবারে ভর্তির জন্য শিশুর অভিভাবক নির্ধারিত ফরম পূরণ করে শিশু পরিবারের উপতত্ত্বাবধায়কের নিকট দাখিল করবেন। উপতত্ত্বাবধায়ক আবেদনপত্রগুলো প্রাপ্তির ক্রমানুসারে রেজিষ্টারে লিপিবদ্ধ করবেন এবং তা ভর্তি কমিটির মাধ্যমে চূড়ান্ত করবেন।

 

 

 

নিবাসিদের অনুমোদিত আসন সংখ্যা- ১০০ জন।

বতমান নিবাসী- ৮৩ জন।

শূণ্য আসন-০৭ জন।

প্রবীণ নিবাসী পাইলট প্রকল্পের জন্য সংরক্ষিত আসন-১০ জন।

নাজমা আক্তার

উপ তত্ত্বাবধায়ক

সরকারি শিশু পরিবার, মাইজদী, নোয়াখালী।

ফোন-০৩২১-৬১১১৭

ছবি


সংযুক্তি